Saturday, August 20, 2022

জীবিত ব্যাক্তি কে মৃত সাজিয়ে জাল ওয়ারিশ শংসাপত্র বের করে সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ। বড়সড় সাজিস বাঁকুড়ায়।

নিজস্ব প্রতিনিধি , বাঁকুড়া : জীবিত ব্যাক্তি কে মৃত সাজিয়ে জাল ওয়ারিশ শংসাপত্র বের করে সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ। বড়সড় সাজিস বাঁকুড়ায়।

তৃনমূল নেতার মদতে এক জীবিত কে মৃত সাজিয়ে জাল ওয়ারিশ সার্টিফিকেট বের করে সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ। সম্পত্তি ফিরে পেতে ও ষড়যন্ত্রকারীদের আইনমূলক ব্যবস্থার দাবি নিয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ বাঁকুড়ার তালডাংরা থানার বারমেস্যা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মচারী।

বাঁকুড়ার তালডাংরা থানার বারোমাস্যা গ্রামের বাসিন্দা বিশ্বনাথ মান্না। একজন প্রাক্তন রাজ্য সরকারের কর্মী। সম্প্রতি নজরে আসে বিশ্বনাথ মান্নার বিপুল সম্পত্তির একটা বড় অংশ রেকর্ড হয়ে গেছে এক নিকটস্থের নামে পরে সেই জমিও হস্তান্তর হয়ে যায় স্থানীয় স্থানীয় তৃনমূল নেতার নামে এমন অভিযোগ সামনে আসে। এই বিষয়ে জানতে এসে চক্ষু চড়কগাছ বিশ্বনাথের পরিবারের।
জীবিত ব্যাক্তি কে মৃত সাজিয়ে জাল ওয়ারিশ শংসাপত্র বের করে সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ। বড়সড় সাজিস বাঁকুড়ায়।

তাঁর এক আত্মীয়া বিশ্বনাথ মান্না কে মৃত সাজিয়ে জাল শংসাপত্র তৈরি করে নিজেকে একমাত্র উত্তরাধিকারী স্থাপন করে রাতারাতি বিশ্বনাথ মান্নার সম্পত্তির একটা বড় অংশ নিজের নামে রেকর্ড করে নেয় বলে অভিযোগ। পরে ওই আত্মীয়ার কাছ থেকে বিশ্বনাথ মান্নার পড়োশী হিসেবে পরিচিত গ্রামের এক তৃনমূল নেতা ওই সম্পত্তি নিজের নামে করে নেয়। এই ঘটনার পর থেকে সম্পত্তি ফিরে পেতে ও জাল কারবার করে বে আইনীভাবে সম্মত্তি হাতিয়ে নেওয়া যুক্ত ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে আইনমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন বিশ্বনাথ মান্না ও তার পরিবার।

আরো পড়ুন :Elephant News : আজ ২০.০৭.২০২২ বুধবার দেখে নিন জঙ্গলমহলের জেলাগুলিতে হাতির অবস্থান

ওয়ারিশ সার্টিফিকেটে বিশ্বনাথ মান্না কে মৃত সাজিয়ে নিজেকে একমাত্র উত্তরাধিকারী হিসেবে দাবি করেন নমিতা পাল নামে এক আত্মীয়া। এই বিষয়ে নমিতা পালের দাবি তিনি এই বিষয়ে কিছুই জানেন না।তালডাংরা গ্রাম পঞ্চায়েতের তরফে জানানো হয়েছে যে ওয়ারিশ সার্টিফিকেট নিয়ে এই ধরনের সমস্যা তৈরি হয়েছে সেটা প্রধান ও পঞ্চায়েত সদস্যের সই জাল করে বানানো হয়েছে। তবে কে এই জাল ওয়ারিশ সার্টিফিকেটের কাজ করেছে তা তারা জানেন না।

পঞ্চায়েত প্রধানের সই সিল ও স্থানীয় সদস্যের সই দেখে ধরে নেওয়া হয় ওই ওয়ারিশ সার্টিফিকেট ঠিক ছিল। পরে নজরে আসার পর থ্রী ম্যান কমিটিতে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তালডাংরা ভুমি ও ভুমি সংস্কার দফতর।

জীবিত ব্যাক্তি কে মৃত সাজিয়ে জাল ওয়ারিশ শংসাপত্র বের করে সম্পত্তি হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ। বড়সড় সাজিস বাঁকুড়ায়।

আরো পড়ুন :Maoist Lalgarh police arrested: মাওবাদীদের নাম করে ফোনে হুমকি দিয়ে টাকা তোলার অভিযোগে মঙ্গলবার ১ জনকে গ্রেফতার করল লালগড় থানার পুলিশ

স্থানীয় তৃনমূল নেতা বিজয় মান্না প্রভাব খাটিয়ে এই বে আইনী কারবারের যে অভিযোগ সামনে এসে এই প্রসঙ্গে তালডাংরা ব্লক তৃনমূল সভাপতি বলেন, এর সাথে বিজয় মান্নার কোন সম্পর্ক নেই। ঘটনার খবর পাওয়ার পর তাঁকে ডেকে পাঠিয়ে যাচাই খবর নেওয়া হয়। এরপরে যদিও কোন যোগ থাকে তাহলে দলের তরফ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এই ঘটনা সামনে আসতেই কটাক্ষ করেছে বিজেপি। জাল কারবারে ছেয়ে গেছে রাজ্য। আর সব ক্ষেত্রে নাম উঠে এসেছে তৃনমূলের। এইসব জাল কারভার করে এখানে তৃনমূলের নেতা আমলা মিলেমিশে খাবার জায়গা করেছে। এটা নিয়ে উচ্চ পর্য্যায়ের তদন্তের প্রয়োজন বলে দাবি করছে বিজেপি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

লেটেস্ট খবর

লেটেস্ট খবর

হাতির খবর

জঙ্গলমহল ভ্রমণ