Friday, May 27, 2022

বর্তমান সমাজের “পরিবর্তন” কবিতা কলমে সায়ন চক্রবর্তী

           পরিবর্তন

                         – সায়ন চক্রবর্ত্তী

বহু পুরানো দিনের ছিল

বাংলার এক গ্রাম,

প্রকৃতির  কোলো জন্মেছিল

তাই প্রকৃতির নামে ছিল তার একখানা সুন্দর নাম ।

সুন্দর শ্যামল -স্নিগ্ধা ছিল

তার পরিবেশ,

 ছিল না কোনো কৃত্রিমতা

ছিলনা আড়ম্বর বিশেষ।

তিনদিকে  ছিল জঙ্গল

একদিকে ছিল এক মায়বী নদী ,

জীবন ছিল বড়ই সরল

ছিলনা কোনো দৌড়া -দৌড়ি।

তরতাজা ছিল তার পরিবেশ

মানুষ ছিল অমা্য়িক

 সকলে বাস করত একসাথে

কোনো কর্মই ছিলনা অসামাজিক ।

খেয়ার পারাপার

ঘটাতে যোগাযোগ

চাষের দেত ছিল সুর্ফলা

সকলে থাকত একসাথে না হয়ে বিয়োগ ।

সবুজ মাঠে ঘাসের কোলে

থাকত শুয়ে শিশুরা

 প্রকৃতির কোলে দিন কাঁটাতে

 ঠিক যেন মায়ের আদর পেত তারা ।

ধর্ম -জাতিভেদ ছিলনা তাদের কোনো

সকলে ছিল এক দেহ -এক প্রান,

ভালো-মন্দে যে যার পাশে থাকত

সকলের ছিল  সমান মান ।

মাটে  কাজ করতে যেয়ে

খেতে একটা থালায় অনেকজন ,

 পান্তার সাথে লঙ্কা-পিঁয়াজ মেখে

জুড়াত  সকলের মান ।

গরুতর পাল ঘুরে ঘুরে খেত ঘাস

রাখাল বাঁশি  নিয়ে থাকত ছাওয়ার বসে,

মনের আনন্দে ধরত সুর গর্ত করা বাঁশে ।

নারীরা যেত দল বেঁধে

 করতে স্নান,

 নদীর জলের কোমল  স্নর্শ

করত দুঃখ -বেদনা স্নান ।

দুপুরে হত পাঠ

রামায়ণ- মহাভারত,

বাচ্চা -বুড়ো সকলে বসত

জাতি সকলে সত্যিকারের বিশ্ব -ভারত ।

সন্ধ্যে বেলা হত পালা

নৃত্য -অনুষ্ঠান,

বাইরে থেকে দেখতে আসত লোক

ছাড়ত শিল্লিদের সুনাম ।

 (সংক্ষিত)

* পরে অংশ পরে সপ্তাহে রবিবার আমরা পোষ্ট করবো “পরিবর্তন”  প্রথম অংশটি   কবিতাটি ভালো লাগলো কমেন্ট করুন

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

লেটেস্ট খবর

লেটেস্ট খবর

হাতির খবর

জঙ্গলমহল ভ্রমণ