Thursday, May 26, 2022

“পরিবর্তন” কলমে সায়ন চক্রবর্তী (দ্বিতীয় অংশ)

পরিবর্তন কবিতা কলমে সায়ন চক্রবর্তী প্রথম অংশটি আপনার অনেক ভালোবাসা দিয়েছেন আমারা আজ দ্বিতীয় অংশটি আমরা প্রকাশ করছি আর ভালো লাগলে শেয়ার করবেন :-

পরিবর্তন (দ্বিতীয় অংশ)

— কলমে সায়ন চক্রবর্তী

……………………………………………………………….

মায়াবি দিনগুলি যে কেমনে কেটে যেত

থাকত শুধু শান্তি

তাড়াহুড়ো হতনা জীবন

ক্লান্ত হলেও বোঝাত না কোনো ক্লান্তি ।

কিন্তু সেই শান্তি

টিকল না বেশ দিন ।

বাংলার সেই গ্রামটিতে এল পরিবর্তন

মানুষগুলি যা দেখল তা তারা ভাবেনি কোনো দিন ।

বনকাটা শুরু হল

এল নানান কোটিপতি

বিভিন্ন উপায়ে মানুষকে লোভী করে তুলল

ভুলে গেল তারা সুন্দর জীবন – প্রকৃতি ।

বন কেটে তৈরি হল

শিল্প-ইন্ডাস্ট্রির ইমারত

লোভ দেখিয়ে আনল মানুষ

ভয় দেখিয়ে নিয়ে যাব বলল থানা-আদলত ।

সেই গ্রামটার জীবনে

যেন এল এক যুগান্তকারী পরিবর্তন,

টান-মায়া যেন হারিয়ে গেল

কারোর মধ্যে রইল না কোনো আকর্ষন ।

সকাল হলেই

যে যার চলে যায় ,

পুরোনো দিনগুলোর মায়া

যেন ইতিহাস হয়ে রয়ে যায় ।

সেই মায়াবি নদীটিতে

বসল বালিখাদান

খেলার মাঠ গেল বালি হয়ে লরিতে

ধ্বংস হয়ে গেল কাশের বাগান ।

শুরু হল

অর্থ রোজকারের লড়াই

সেই গ্রামের মাটির মানুষগুলি

বিপুল অর্থ কামিয়ে করল নিজেদের বড়াই ।

বড় বড় মেশিনের শব্দ

রাতের ঘুম দের ভাঙিয়ে ,

সেই মানুষগুলোকে ভুলিয়ে দিয়েছে সব

বিপুল অর্থ পাইয়ে ।

সেই সোনার মতো গ্রামটি

হলো কয়লা.

স্নিগ্ধা পরিবেশ দূষিত হলো

চারিদিকে হলো ময়লা ।

নদীটির গতিপথ গেল

পরিবর্তন হয়ে ,

ইন্ডাট্রির ধৌঁয়া – শব্দ

সব কিছুই দিল – বিষিয়ে ।

মাটির মানুষগুলো গেল

সবকিছু ভুলে,

নিজেদের মধ্যে তৈরি হল প্রতিযোগিতা

পুরোনো দিনের টানমায়া ফেলে ।

অর্থ-অর্য করে দেপে গেল সব

পুরোনো আড্ডা -পালা থাকলো না আর,

সবাই শুধু নিজের চিন্তা করতে থাকল

শুধু রোজকারের কথা ভাবল হাজার বার ।

হঠাৎ সেই শিল্পগুলো

হল বন্ধ একে একে

এবারইতো এল আসল মজা

শুধু অর্থের চিন্তা করে করে ।

জঙ্গলতো নেই আর

চাষ – জুমিগুলোও অনাবাদি হয়ে পড়েছে

নদীর তীরে গরু চরানোর জায়গা নেই

সেই আসল প্রকৃতির সব কিছুই তারা কেড়ে নিয়েছে।

এখন কী হবে ?

সকলের অর্থ আছে ,

কিন্তু খাদ্য সমগ্রী নেই

সুন্দর পরিবেশ দূষিত হয়ে পড়েছে ।

সকলে তখন কাজ করতে

যায় বাইরে

দু-বেলা পেটপুরে খেতে পায়না তারা

দিন-রাত পরিশ্রম করে ।

সেই মাটির মানুষগুলি ভাবে

তারা কী ভুলি করেছিল,

সেই দিনগুলি ফেলে

প্রকৃতিকে অত্যাচার করেছিল ।

এখন প্রকৃতিমা অসন্তুষ্ট

সেই গ্রামটিতে বসবাস অনউপযোগী,

জঙ্গল- নদী সবশেষ মানুষগুলি বাধ্য হয়ে যায় অন্যত্র হয়ে দুঃখী।

থেকে যায় সেই গ্রামটি

ও পুরোনো দিনগুলি অতীত হয়ে,

সেই মানুষগুলির বেদনার অন্ত থাকে না

বসে তারা শুধুই ভাবে ধ্বংস আসে পরিবর্তনের সাথে । (সমাপ্ত)

( আপনি যদি আপনার লেখা কোন কবিতা বা গল্প আমাদের পাঠাতে চা্‌ই তা্হলো পাঠান ৯০৬৪৯০১৯৫৯ নম্বরে )

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

লেটেস্ট খবর

লেটেস্ট খবর

হাতির খবর

জঙ্গলমহল ভ্রমণ