Thursday, August 11, 2022

জঙ্গলমহলের লালগড়ের এক চেনা অচেনা চিত্র

জোহার জঙ্গলমহল প্রতিবেদন: ঝাড়গ্রাম জেলাকে রাজ্যের জঙ্গলমহলের রানী বলা হয়ে থাকে। জঙ্গলমহলের আরো জেলাগুলির মধ্যে ঝাড়গ্রাম জেলা অন্যতম। এই ঝাড়গ্রাম জেলাতেই অবস্থিত লালগড় গ্রাম। ঝাড়গ্রাম মহকুমার অধীনস্ত বিনপুর-১ সমষ্টি উন্নয়ন ব্লকের অন্তর্গত চারিদিকে জঙ্গল দ্বারা বেষ্টিত এই লালগড়। একসময় ব্যাপক মাওবাদীদের ব্যাপক আধিপত্য ছিল এই লালগড়ে। ২০০৮ সালের নভেম্বর মাস থেকে লালগড় শিরোনামে আসে।

বর্তমানে মাওবাদীদের প্রভাব কমে গেলেও সারা ঝাড়গ্রাম জেলা জুড়ে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করেছে দলমা হাতির দল। বর্তমানে হাতির হানায় অতিষ্ঠ ঝাড়গ্রাম জেলাসহ লালগড়বাসী। সারা জেলাজুড়ে হাতির হানা অব্যাহত। আগে বছরে তিনবার হাতি আসত এই এলাকায়। কিন্তু বর্তমানে সারাবছরই ঘাটি গেড়ে বসেছে দলমার হাতির দল। এই সকল এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা রোজকারের জন্য মূলত জঙ্গলের উপর নির্ভরশীল। এখানকার মানুষের প্রধান পেশা হলো কৃষিকাজ, পাতা থেকে থালা বা প্লেট তৈরি ও বিক্রয়। তবে মাটি শুষ্ক হওয়ার জন্য এইসকল এলাকায় বছরে একবার চাষ করা হয়। মূলত জঙ্গল থেকে পাতা, কাঠ, ফল সহ অন্যান্য বনজ দ্রব্য সংগ্রহ করে জীবিকা নির্ধারণ করতে হয়। বর্তমানে এই সকল এলাকায় হাতির উপদ্রব আগের তুলনায় অনেকটা বেড়ে যায় জীবিকা নির্ধারণ সহ আরো অন্যান্য চরম সমস্যায় ভূগতে শুরু করেছেন এই সমস্ত এলাকাবাসী। সারা রাত জেগে হাতি তাড়ানোর ক্ষেত্রে নিজেদের জীবন বিপন্ন করে এক অনন্য ভূমিকা পালন করে থাকেন হুলাপার্টি। কিন্তু এই হুলাপার্টিদের দেওয়া হয় না কোনো মাসিক বেতন বা ভাতা। না আছে কোনো ইন্সুরেন্স বা কোনো পরিচয়পত্র। তাই হুলাপার্টিদের দাবি তাদের অন্তত একটা মাসিক বেতন বা ভাতার ব্যবস্থা করা হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

লেটেস্ট খবর

লেটেস্ট খবর

হাতির খবর

জঙ্গলমহল ভ্রমণ