Wednesday, October 5, 2022

Cyclone Yaas: ঘূর্ণিঝড় যশ ধেঁয়ে আসছে পশ্চিমবাংলার দিকে

 
Cyclone Yaas: ঘূর্ণিঝড় যশ ধেঁয়ে আসছে পশ্চিমবাংলার দিকে

জোহার জঙ্গলমহল ডেস্ক : অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় আমফানের স্মৃতি এখনও আম বাঙালির কাছে টাটকা। এর এক বছরের মধ্যেই আরেক শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় তৈরি হচ্ছে বঙ্গোপসাগরে। মনে করা হচ্ছে আগামী ২৩-২৫ মে-র মধ্যে আছড়ে পড়তে পারে বঙ্গোপসাগরের কোনও উপকূলবর্তী এলাকায়। ওডিশা ও পশ্চিমবঙ্গ উপকূলের দিকেই আপাতত অভিমুখ বলে মনে করছেন আবহবিদরা। এই সুপার সাইক্লোনের (Severe Cyclone) নাম ‘যশ’ (Yash)।
 নামটি দিয়েছে ওমান। মৌসম ভবনের খবর, আগামী ২৩ মে নাগাদ নিম্নচাপটি তৈরি হবে মায়ানমার লাগোয়া পূর্ব-মধ্য বঙ্গোপসাগরে। এবং সেটি ক্রমশ শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিনত হবে। ফলে পুরো বিষয়ের দিকে কড়া নজর রাখছেন আবহবিদরা। মৌসম ভবনের পূর্বাঞ্চলীয় প্রধান, উপ মহানির্দেশক সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। আমরা নজর রাখছি। 
বৃহস্পতিবার নাগাদ আরও স্পষ্ট করে বলা যাবে’।অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘তাউটে’-র দাপটে লণ্ডভণ্ড দেশের পশ্চিম উপকূল। এবার পূর্ব উপকূলের দিকে ধেয়ে আসতে পারে আরও এক শক্তিশালী ঘূর্ণঝড়। বঙ্গোপসাগরের ওপরে এই ঘূর্ণিঝড়ের জন্ম হতে চলেছে আগামী তিনদিনের মধ্যেই। সলতে পাকাচ্ছে নিম্নচাপ অক্ষরেখা। গুরুগম্ভীর হয়ে আগামী শনিবার ২২ তারিখে ভারী নিম্নচাপ তৈরি হবে বঙ্গোপসাগরের পূর্ব উপকূলে। 

আরো পড়ুন : Narada Scam Update :আপাতত জেল হেফাজতেই থাকবেন চার হেভিওয়েট, আগামিকাল ফের নারদ মামলার শুনানি

শক্তি বাড়িয়ে প্রবল গর্জনে তাই ছুটে আসবে পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশার দিকে। বঙ্গোপসাগরে ঘনিয়ে উঠছে গভীর নিম্নচাপ মৌসম ভবন সতর্ক করেছে বঙ্গোপসাগের আরও এক নিম্নচাপ ঘনীভূত হতে চলেছে। এই নিম্নচাপ জট পাকিয়েই ঘূর্ণিঝড়ের জন্ম দেবে। এখন সেই ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে। আন্দামান সাগর (উত্তর) ও সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরের পূর্ব-মধ্য অঞ্চলে গভীর নিম্নচাপ তৈরি হবে ২২ তারিখ নাগাদ, অর্থাত্‍ শনিবার। এই নিম্নচাপ আরও জলীয় বাষ্প টেনে ধীরে ধীরে ঘনীভূত হয়ে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় তৈরি করবে। ২৫-২৬ তারিখ নাগাদ এই ঘূর্ণিঝড় তেড়ে আসবে পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশার উপকূলের দিকে
বঙ্গোপসাগরে কেন এত ঘন ঘন ঘূর্ণিঝড়ের জন্ম হচ্ছে? আবহবিজ্ঞানীরা এর জন্য জলবায়ু বদলকেই দায়ী করেছেন। বলা হচ্ছে, বিশ্ব উষ্ণায়ণের কারণে সমুদ্রতলের উষ্ণতা বাড়ছে। সাধারণত, সমুদ্রতলের উষ্ণতা ২৬.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে উঠলে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা তৈরি হয়। সেই সঙ্গে বায়ুপ্রবাহ, বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ ইত্যাদি আরও ফ্যাক্টর কাজ করে। তবে সমুদ্রতলের উষ্ণতা বৃদ্ধির সঙ্গে ঘূর্ণিঝড়ের জন্মের সম্ভাবনা ঠিক কতটা তা এখনও গবেষণার স্তরেই আছে।

 মৌসম ভবন, বলছে, আরব সাগর ও বঙ্গোপসাগরে সমুদ্রপৃষ্ঠের উষ্ণতা ১-২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়েছে। এই মুহূর্তে বঙ্গোপসাগরে সমুদ্রতলের উষ্ণতা ঘূর্ণিঝড় তৈরির অনুকূল পরিবেশ তৈরি করেছে। সেই সঙ্গে পারিপার্শ্বিক বায়ুপ্রবাহ, জলীয় বাষ্পের ঘনত্ব সব দিক দেখেই শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ের পূর্বাভাস দেওয়া সম্ভব হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

লেটেস্ট খবর

লেটেস্ট খবর

হাতির খবর

জঙ্গলমহল ভ্রমণ